GOOGLE

গুগল আসলে একটি জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। এর বহুল ব্যবহারের ফলে ইন্টারনেটের সাথে গুগল শব্দ যেন সমর্থক হয়ে গেছে। মানুষ খুঁজে নেওয়ার পরিবর্তে গুগল করে নেওয়া প্রতিবন্ধও ব্যবহার করে থাকে। একটি গ্যারেজে কতিপইয় স্টুডেন্টের চেষ্টায় তৈরী হয়েছিল এই কোম্পানী। এখন একে ছাড়া ইন্টারনেট ভাবা যায় না।


YOUTUBE

এটি তৈরী হয়েছিল মূলত ডেটিং সাইট হিসেবে, পরবর্তীকালে এটি বিশ্বের সেরা ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট হিসেবে উঠে এসেছে। গুগলের পরেই মানুষ এখানে সবথেকে বেশী সার্চ করে থাকে। বিশ্বের সমস্ত বিষয়ে ভিডিও এখানে খুঁজে পাওয়া যায়। মূলত এর ব্যবহারকারীরাই এখানে ভিডিও আপলোড করে থাকে।


FACEBOOK

এটি একটি সর্বাধিক জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইট। মূলত কলেজের স্টুডেন্টরা মিলে একটি ডাটাবেস তৈরীর জন্যে এটি তৈরী করে। পরবর্তীকালে আরও বিভিন্ন কলেজ এবং তারপর ধীরে ধীরে গোটা বিশ্বে এটি সমস্ত বয়সের মানুষদের মধ্যে সমানভাবে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। মানুষ তার মনের কথা প্রতিনিয়ত এখানে শেয়ার করে।


TWITTER

ফেসবুকের মতই একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। তবে এর জনপ্রিয়তা কিছুটা কম। মূলত বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশিষ্ট মানুষেরাই এটি ব্যবহার করে। গড়পড়তা সাধারণ মানুষের ভীড় এখানে বেশী দেখা যায় না।


YAHOO

গুগলেরও আগে ইন্টারনেটে যার একছত্র অধিপত্র ছিল, সে এই ইয়াহু। কিন্তু সময়ের সাথে বদলাতে না পারায় এর জনপ্রিয়তা তলানিতে এসে ঠেকে। বর্তমানে এটি আর পাঁচটা সার্চ ইঞ্জিনের মতই একটি সার্চ ইঞ্জিন। নিজের গরিমা হারিয়ে ফেললেও, মানুষের মনে এর প্রতি শ্রদ্ধা আজও অসীম।


Follow Our Facebook Page